কলেজে অনুষ্ঠিত বিদায় অনুষ্ঠান সম্পর্কিত প্রতিবেদন-প্রতিবেদন

তােমার কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন রচনা কর।

অথবা, তােমার কলেজে অনুষ্ঠিত বিদায় অনুষ্ঠান সম্পর্কে অধ্যক্ষের নিকট একটি প্রতিবেদন পেশ কর।

তারিখ : ১৫ই মার্চ ২০১৯

বরাবর

অধ্যক্ষ

মডেল কলেজ

কুমিল্লা।

বিষয় : কলেজে অনুষ্ঠিত বিদায় অনুষ্ঠান সম্পর্কিত প্রতিবেদন।

সূত্র : স্মারক নং-../২৩০/১৯

জনাব

আপনার আদেশক্রমে (আদেশ নং-.../২৩০/১৯) সম্প্রতিসরকারি কলেজে অনুষ্ঠিত এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পর্কে তথ্যানুসন্ধান করে আপনার সদয় অবগতির জন্য একটি প্রতিবেদন পেশ করছি।

মডেল কলেজে বিদায় অনুষ্ঠান উদযাপিত

মডেল কলেজটি কুমিল্লা জেলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। ১৯৯০ সাল থেকে কলেজটির অগ্রযাত্রা শুরু হয়। এরপর কেটে গেছে অনেক বছর। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে কলেজটি আজ একটি আদর্শ বিদ্যাপীঠে পরিণত হয়েছে। প্রতিবছর কলেজ থেকে অনেক ছাত্র-ছাত্রী কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল করছে। তাদের কেউ কেউ কর্মজীবনে আবার কেউ কেউ উচ্চতর শিক্ষা জীবনে প্রবেশ করছে। তাদের মধ্য থেকে অনেকেই ভালাে ভালাে চাকরিতে যােগদান করছে। ফলে কলেজের সুনাম সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে।

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য কলেজে প্রতিবছর বিদায় অনুষ্ঠানের আয়ােজন করা হয়। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ১৩ মার্চ অনুষ্ঠানের আয়ােজন করা হয়েছিল। একাদশ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্য থেকে দশ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে কলেজের পাঁচজন অধ্যাপক দায়িত্ব পালন করেন।

এবারের অনুষ্ঠানটি ছিল অন্যান্য বারের তুলনায় খুবই বৈচিত্র্যপূর্ণ। উপলক্ষ্যে কলেজের মিলনায়তন অত্যন্ত সুন্দরভাবে সাজানাে হয়েছিল। সকল ছাত্র-ছাত্রী অধ্যাপক-অধ্যাপিকাগণ এবং কলেজের পরিচালনা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। তবে এদিন ছাত্র-ছাত্রীরা কলেজের নির্দিষ্ট ইউনিফর্ম না পরে, পরেছিল রং-বেরঙের পােশাক। ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকগণও উপস্থিত ছিলেন।

সকাল ১০:০০টা থেকে বিদায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। প্রথমে কুরআন থেকে তেলাওয়াত করা হয়। তারপর অধ্যক্ষের আলােচনার মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিদায় অনুষ্ঠানের মূল পর্ব। তিনি তার বক্তৃতায় ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ দিক নির্দেশনা দেন এবং সেই সঙ্গে পরীক্ষার কেন্দ্রে পালনীয় নিয়মাবলি ব্যাখ্যা করেন। তারা ভবিষ্যতে যেন দেশ জাতির কল্যাণ বয়ে আনে, সেই আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি তার বক্তৃতা শেষ করেন।

আলােচনায় অংশ নেয় কলেজের পরিচালনা কমিটির সভাপতি অন্যান্য সদস্যরা। অভিভাবকদের মধ্য থেকেও কয়েকজন বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে মূল্যবান দিক-নির্দেশনা দেন।

তারপর প্রতিটি বিষয়ে কীভাবে উত্তর করতে হবে সম্পর্কে অধ্যাপকগণ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা উপস্থাপন করেন।

বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করে একাদশ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীরা। পরীক্ষার্থীদের মধ্য থেকে কয়েকজন তাদের স্মৃতিচারণ করে। সময় এক আবেগময় পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানাে হয়। পরে পরীক্ষার্থীদের সাফল্য কলেজের উত্তরােত্তর মঙ্গল কামনা করে মােনাজাত করা হয়।

দ্বিতীয় পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়ােজন করা হয়। কবিতা আবৃত্তি, গান নাচ ছিল পর্বের প্রধান আকর্ষণ।

আনন্দ-উল্লাসের মধ্য দিয়ে বিদায় অনুষ্ঠান পালিত হয়। ছাত্র-ছাত্রীরা অত্যন্ত সুশৃঙ্খল ভাবগম্ভীর পরিবেশে বিদায় দিবস পালন করে। উপস্থিত সুধীজনের মতে, ধরনের অনুষ্ঠান কলেজের ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখার পাশাপাশি শিক্ষকশিক্ষার্থী অভিভাবকদের মাঝে সৌহার্দ বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে।

প্রতিবেদকের নাম ঠিকানা    : আরমান, ‘মডেল কলেজ।

প্রতিবেদনের শিরােনাম             : ‘মডেল কলেজে বিদায় অনুষ্ঠান উদযাপিত

প্রতিবেদন তৈরির সময়          : বিকাল :০০টা

তারিখ                            : ১৫ই মার্চ ২০১৯


Share This Post

Post Comments (0)



Latest Post

Suggestion or Complain

সংবাদ শিরোনাম